মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৩ August ২০১৮

আজ (১৩ আগস্ট, ২০১৮ খ্রি:) দুর্নীতি দমন কমিশন এর প্রধান কার্যালয়, ঢাকা ‘দুর্নীতি প্রতিরোধ ও উত্তম চর্চার বিকাশে এফ.এম বেতারের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।


প্রকাশন তারিখ : 2018-08-13

তারিখঃ ১৩/৮/২০১৮ খ্রি:

আজ সকালে দুর্নীতি দমন কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে ‘‘দুর্নীতি প্রতিরোধ ও উত্তম চর্চার বিকাশে এফ.এম বেতারের ভূমিকা’’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের দেশপ্রেম ও নৈতিক মূল্যবোধকে আরও শানিত করার লক্ষ্যে দুর্নীতি দমন কমিশন এফ.এম বেতারের সহযোগিতায় কিছু  বিশেষ বার্তা প্রচার করতে চায়। কমিশন উত্তম চর্চার বিকাশে তরুণ প্রজন্মকে নানাভাবে সম্পৃক্ত করেছে জানিয়ে  তিনি বলেন, কমিশন কর্তৃক বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গঠিত প্রায় ২৫ হাজার “সততা সংঘের” মাধ্যমে দেশব্যাপী বিতর্ক প্রতিযোগিতা, কার্টুন, রচনা প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মসূচির মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মকে দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনে সম্পৃক্ত করা হচ্ছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক এবং সামাজিক বিভিন্ন সূচকে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করলেও শিক্ষার মান নিয়ে বিভিন্ন মহলে নেতিবাচক কিছু সমালোচনা রয়েছে। নতুন প্রজন্মকে যদি সুশিক্ষায় বা মূল্যবোধসম্পন্ন শিক্ষায় শিক্ষিত করে সক্ষম মানবসম্পদে পরিণত করা না যায়, তাহলে টেকসই উন্নয়ন কঠিন হতে পারে। 


তিনি বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের অভিযোগ কেন্দ্র হটলাইন-১০৬ সহ বিভিন্ন মাধ্যমে কমিশনে হাজার হাজার অভিযোগ আসে। তবে এসকল অভিযোগের অধিকাংশই কমিশন আইনের তফসিল বহির্ভূত হওয়ায় কমিশনের পক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ থাকে না। এতে অভিযোগকারীদের কাছে ভুল বার্তা যায় এবং তাঁরাও হতাশ হন। তাই কমিশনের আইনি ম্যান্ডেট ব্যপক প্রচারের জন্য তিনি এফ.এম বেতারের নির্বাহীদের সহযোগিতা চান। তিনি বলেন, দুদক অভিযোগ কেন্দ্র হটলাইন -১০৬ এর মাধ্যমে পাওয়া অভিযোগর ভিত্তিতে অসংখ্য অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে, পাশাপাশি প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের মাধ্যমেও অনেক সমস্যার সমাধান করা হচ্ছে। 


এফ.এম বেতার প্রতিনিধিগণ তাদের রেটিং মাণ মূল্যায়ন প্রতিষ্ঠান গজই MRB Global এর গবেষণার Methodology নিয়ে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ জানিয়ে দুদকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এসময় দুদক চেয়ারম্যান তাদের আশ্বস্ত করে বলেন, রেডিও ও টেলিভিশনের মান নিয়ে কাজ করে এসকল প্রতিষ্ঠানের কার্যপদ্ধতি কমিশন বিধিমত খতিয়ে দেখতে পারে। 

সড়ক বিশৃঙ্খলা নিয়ে গণমাধ্যম কর্মীগণের প্রশ্নের জবাবে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, আইন তৈরি করা হয় আইন মানার জন্য,তা ভাঙ্গার জন্য নয়। কমিশন কর্তৃক আইন মানার জন্য গৃহীত বিভিন্ন কার্যক্রমের কথা  উল্লেখ করে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, বিআরটিএ’র বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে কমিশন সবচেয়ে বেশি সংখ্যক অভিযান পরিচালনা করেছে। বেশ কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে তারপরও তাদের বিষয়ে অভিযোগের অন্ত নেই। কমিশন তাদের কার্যক্রম গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। 


তিনি বলেন আসুন, নিজেদের স্বার্থে এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মের স্বার্থে আইন মেনে চলি। কীভাবে উল্টোপথে গাড়ি চলে প্রশ্ন রেখে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, এটা অবশ্যই থামাতে হবে। পদচারী সেতু রয়েছে অথচ আমরা কেউ ব্যবহার করবো না এটাও হতে পারে না। আমরা যারা আইন প্রয়োগ করবো তারা সবার আগে আইন মানবো এটা জনসাধারণ দেখতে চায় বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনের কেউ যদি আইন অমান্য করে দুর্নীতি করেন, তাহলে তার বিরুদ্ধে অন্যান্য নাগরিকের বিরুদ্ধে যেভাবে আইন প্রয়োগ করা হয় একইভাবে আইন প্রয়োগ করা হবে। এক্ষেত্রে ঘরে-বাইরে কাউকেই কোনো প্রকার অনুকম্পা দেখানো হবে না।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে দুদক চেয়ারম্যান জানান, বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির দুর্নীতির তদন্ত দ্রুত সম্পন্ন হবে। তদন্ত শেষ হওয়ার আগেই তদন্তের ফলাফল জানার সুযোগ নেই বলেও তিনি মন্তব্য করেন।


মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রেডিও ভূমির শামস সুমন, পিত্তপলস রেডিও’র আব্দুল আউয়াল, রেডিও টুডের মোঃ সোয়েবুল হক, এবিসি রেডিও’র তালাত মাহমুদ প্রমুখ।

 
 

Share with :

Facebook Facebook