ক্যারিয়ার

.

Share/Save

দুদক আইন ২০০৪ অনুযায়ী দক্ষতার সাথে কাজ পরিচালনার জন্য কমিশন প্রয়োজনীয় সংখ্যক কর্মকর্তা ও কর্মী নিয়োগের ক্ষমতাপ্রাপ্ত (ধারা ১৬(৩))। আইনে আরো উল্লেখ আছে যে, সচিব ও অন্যান্য কর্মীর নিয়োগ ও শর্ত আইন দ্বারা এবং এ ধরনের আইন প্রণীত না হওয়া পর্যন্ত প্রশাসনিক আদেশ দ্বারা নির্ধারিত হবে - যাতে সরকারের অনুমোদন প্রয়োজন হবে {ধারা ১৬(৪)}। কর্মীদের নিয়োগ ও শর্ত নির্ধারণ করতে সংবিধিবদ্ধ ক্ষমতা প্রয়োগের মাধ্যমে কমিশন দুর্নীতি দমন কমিশন (কর্মচারী) নিয়োগ বিধি, ২০০৮ ঘোষণা করে। বিধিতে দুদকের শূন্য পদসমূহ পূরণে চারটি পদ্ধতির উল্লেখ রয়েছে। পদ্ধতিগুলো হলো: সরাসরি নিয়োগ, পদোন্নতির মাধ্যমে নিয়োগ, ডেপুটেশনে বদলির মাধ্যমে নিয়োগ এবং চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ। বিধি ৪ মোতাবেক সরাসরি নিয়োগ বা পদোনড়বতির মাধ্যমে নিয়োগের ব্যাপারে পরামর্শ প্রদানে কমিশনকে একটি নিয়োগ ও পদোন্নতি কমিটি গঠন করতে হবে।

২০১২ সালে কমিশন ২০০৮ সালের চাকুরি বিধির তফশিল-১, ক্রমিক নং-১২ এবং কলাম ৪-এ একটি সংশোধন আনে। এতে উপ-সহকারী পরিচালক নিয়োগের ক্ষেত্রে ‘৬০ শতাংশ সরাসরি নিয়োগ ও ৪০ শতাংশ পদোন্নতির মাধ্যমে নিয়োগ’ অনুপাত সংশোধন করে ‘৫০ শতাংশ সরাসরি নিয়োগ ও ৫০ শতাংশ পদোন্নতির মাধ্যমে নিয়োগ’ এর বিধান করা হয়।

তথ্যসমূহ শ্রেণি প্রকাশিত ফাইল
চাকুরীর আবেদন ও প্রবেশপত্র ফরম
29/10/2015
ডাউনলোড